তৃনা সাহার একঘেয়েমি, অতিরিক্ত ন্যাকামির জন্য টিআরপি কমছে খড়কুটোর

প্রথম থেকেই সৌজন্য এবং গুনগুন দর্শকদের মন জয় করে নিয়েছে। তাঁদের সম্পর্কের রসায়নকে ভালোভাবেই উপভোগ করছেন মানুষ। তাঁদের প্রেম আর ঝগড়ার চর্চা এখন মানুষের ঘরে ঘরে। তবে এসবের মাঝেই দর্শকদের মনঃক্ষুণ্ণ হয়েছে। তার কারণ সকলের প্রিয় গুনগুন।

সে এখন একটু বেশিই অবুঝ, বড় বেশিই ন্যাকা সাজছে এমনই দাবি তাঁদের। আর নেটিজেনদের এই রকম রোষের মুখেই এখন স্টার জলসার জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘খড়কুটো’। গুনগুনের সাদাসিধে স্বভাব আর মানতে রাজি নন নেটাগরিকরা। কারণ কয়েকদিন আগে নববর্ষের সময় ধারাবাহিকে দেখানো হয়েছিল মুখোপাধ্যায় পরিবারে আসতে চলেছে এক নতুন অতিথি।

পরিবারকে সেই সুখবর এনে দিয়েছে বাড়ির আরেক জুটি ঋজু ও মিষ্টি। সম্পর্কে গুনগুনের দাদা এবং বৌদিভাই। এখানে দেখানো হয়, নববর্ষের প্রথম দিনেই শরীর খারাপ হয় মিষ্টির। সারাদিন সে শুধু বমি করতে থাকে।পরে জানা যায় মিষ্টি মা হতে চলেছেন,সবাই বুঝলেও গুনগুন কিছুতেই এ ব্যাপারটি বোঝেনা।

গল্পের এই দিকটাই মেনে নিতে পারেননি নেটাগরিকরা। তাঁদের দাবি, গুণগুণ একজন বড় ডাক্তারের মেয়ে। ইংরেজি মাধ্যম স্কুলে পড়াশোনা করেছে। প্রাপ্ত বয়সে বিয়েও হয়েছে তাঁর। তারপরেও এই না বোঝার ভান কেন? কেন সে বুঝতে পারে না বাচ্চা কীভাবে হয়। ধারাবাহিকের লেখক কি দর্শকদের বোকা ভাবেন?’,এমন প্রশ্নও উঠছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। এই কারণেই নাকি দিনদিন একঘেয়ে হয়ে উঠছে ধারাবাহিক। এ জন্যই নিচে নামছে টিআরপি দাবি করেছেন খড়খুটোর দর্শকরাই

হ্যাঁ, আমি অনুদান দিতে ইচ্ছুক

    You May Like this Article