দেশের মানুষের ভালোর জন্য উপদেশ দিয়েছিলেন প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী, বিনিময়ে জুটলো কটাক্ষ

দেশে রোজ লাফিয়ে বাড়ছে করোনা সংক্রমণ। এই কোভিড পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার জন্য পাঁচটি উপায় বাতলে প্রধানমন্ত্রী মোদিকে চিঠি লিখেছিলেন প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং। তাতে লিখেছিলেন, প্রত্যেক দেশবাসীর জন্য টিকা খুব জরুরি। টিকাকরণে তাই আরও স্বচ্ছতা আনা দরকার।

তার জবাবেই কড়া চিঠি লিখলেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষ বর্ধন। তাঁর নিজের দলের নেতাদের উপদেশ দেওয়া উচিত মনমোহনের।এদিন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষ বর্ধন টুইটারে লিখলেন, ‘‌মনমোহন সিংজি, ইতিহাস আপনার প্রতি সদয় হত যদি আপনার দেওয়া পরামর্শ আপনার দলের নেতারা মেনে চলতেন।’‌ তার পরেই মনমোহনের চিঠির জবাব দিলেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী।একের পর এক অভিযোগ তুলে ধরলেন তিনি। বর্ষ বর্ধন লিখলেন, এখন পর্যন্ত এক জন কংগ্রেস নেতাও করোনার টিকা আবিষ্কারের জন্য বিজ্ঞানীদের প্রশংসা করেননি। উল্টে কংগ্রেস নেতা এবং কংগ্রেস শাসিত রাজ্যের সরকার টিকা নিয়ে গুজব ছড়িয়েছেন। যার জেরে মানুষের মধ্যে টিকা নেওয়া নিয়ে অনীহা তৈরি হয়েছে। এক কংগ্রেসি মুখ্যমন্ত্রী সরাসরি দেশে তৈরি করোনার টিকা না নেওয়ার জন্য মানুষকে প্ররোচনা দিয়েছেন।

হর্ষ বর্ধনের আরও অভিযোগ, কংগ্রেস নেতারা সামনে টিকার সমালোচনা করলেও আড়ালে গিয়ে টিকা নিচ্ছেন। কারণ তাঁরা জানেন, এই টিকার কার্যকারিতা কতটা। তাই মুখে মিথ্যা প্রচার করলেও তাঁরা নিজেদের সুরক্ষিত করেছেন বলে দাবি কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রীর।
এর পরেই হর্ষ বর্ধনের কটাক্ষ, ‘‌দেশের প্রতি আপনার এই উদ্বেগের জন্য ধন্যবাদ। আমরাও দেশের জন্য একই রকম চিন্তাভাবনা করছি। কিন্তু আপনার দলের নেতাদেরও কিছু পরামর্শ দিন। তা হলে পরিস্থিতি এমন দাঁড়ায় না।’‌

হ্যাঁ, আমি অনুদান দিতে ইচ্ছুক

    You May Like this Article
 

You May Like

‘নিজের নাক কেটে পরের যাত্রা ভঙ্গ করেছে বিজেপি কর্মী’, বিস্ফোরক শুভেন্দু
তৃণমূল প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানি বলেই হেরেও মুখ্যমন্ত্রী মমতা: শুভেন্দু
ঠাঁই নেই কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায়, রাজ্য যুব মোর্চার পদ থেকে ইস্তফা সৌমিত্রর
‘মানুষ বোকা নয়’, যশ-শ্রাবন্তী-পায়েলকে নিয়ে সমালোচনায় বিজেপি নেত্রী কাঞ্চনা
মুখে লিউকোপ্লাস্ট লাগিয়ে বসে থাকুন, বিরোধীদের তীব্র কটাক্ষ জ্যোতিপ্রিয় র
আজ থেকে অধিবেশন, ভেবে চিন্তে আপাতত পদ্ম সারিতেই বসবেন মুকুল
হোয়াটসঅ্যাপ এর বার্তা ফাঁস করে ষড়যন্ত্রর প্রমাণ দিলেন দেবাংশু !
‘রাজ ভবনে কেন দেবাঞ্জনের দেহরক্ষী?’রাজ্যপালের সঙ্গে ছবি প্রকাশ করে তোপ তৃণমূলের
‘পরকীয়া’য় বেশি মন রাজ্যপালের, বিতর্কিত দাবি মদন মিত্রের
ভোটার সংখ্যা ৬৭৬, কিন্তু ভোট পড়ল ৭৯৯! নন্দীগ্রামের নথি নিয়ে তোলপাড় রাজ্য