১৯এ হাফ,২১ এ সাফ বিজেপির শ্লোগান কতটা সত্যি হলো‌ একনজরে দেখে নিন

বেলা বাড়তে ফের বদলাতে শুরু করেছে ট্রেন্ড। যারা পিছিয়ে পড়েছিলেন তাঁদের অনেকেই এগিয়ে গেলেন৷ যাঁরা সকাল থেকে এগিয়ে ছিলেন, তাঁরা আবার পিছিয়ে পড়লেন দৌড়ে৷ দেখা নেওয়া যায় বর্তমান ট্রেন্ড৷

এই মুহূর্তে আসানসোল দক্ষিণ কেন্দ্রে এগিয়ে গিয়েছেন তৃণমূলের তারকা প্রার্থী সায়নী ঘোষ৷ তিনি পিছনে ফেলেছেন বিজেপি প্রার্থী অগ্নিমিত্রা পালকে৷ আবার উল্লেখজনক ভাবে পশ্চিম মেদিনীপুরের ডেবরা কেন্দ্রে ভারতী ঘোষকে পিছনে ফেলে এগিয়ে গেলেন হুমায়ুন কবীর৷ সকাল থেকে এই কেন্দ্রে এগিয়েছিলেন ভারতী৷ কলকাতার অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ চৌরঙ্গী কেন্দ্রে এগিয়ে তৃণমূল প্রার্থী নয়না বন্দ্যোপাধ্যায়৷ বাঁকুড়ায় এগিয়ে সায়ন্তিকা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ চন্ডীতলায় এগিয়ে গিয়েছেন তৃণমূল প্রার্থী সোহম৷ এগিয়ে রয়েছেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়, শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়, মদন মিত্র, ব্রাত্য বসু, সুজিত বসু, রাজ চক্রবর্তী, ইন্দ্রনীল সেন৷ কৃষ্ণনগরে এগিয়ে রয়েছেন মুকুল রায়৷ পিছিয়ে পড়েছেন তৃণমূল প্রার্থী গৌতম দেব এবং কৌশানী মুখোপাধ্যায়৷ পিছিয়ে গিয়েছেন বেহালায় বিজেপি প্রার্থী শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়, চুঁচুড়ায় লকেট চট্টোপাধ্যায় ও চন্ডীতলায় যশ দাশগুপ্ত৷ পিছিয়ে সংযুক্ত মোর্চার মহম্মদ সেলিম৷

বিভিন্ন জায়গায় শুরু হয়ে গিয়েছে তৃণমূলের উচ্ছ্বাস৷ উড়ছে সবুজ আবীর৷ হচ্ছে মিষ্টিমুখ৷ অন্যদিকে, কৈলাস বিজয়বর্গীয় বলেন, বাবুল সুপ্রিয়, লকেট চট্টোপাধ্যায়ের পরাজয় খুবই আশ্চর্যজনক৷ এছাড়াও বেশ কয়েকটি আসনে পরাজয় দেখে আমরা অবাক৷ এর পিছনে নানা কারণ থাকতে পারে৷ পরে তা বিশ্লেষণ করে দেখা হবে৷

হ্যাঁ, আমি অনুদান দিতে ইচ্ছুক

    You May Like this Article
 

You May Like

‘নিজের নাক কেটে পরের যাত্রা ভঙ্গ করেছে বিজেপি কর্মী’, বিস্ফোরক শুভেন্দু
তৃণমূল প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানি বলেই হেরেও মুখ্যমন্ত্রী মমতা: শুভেন্দু
ঠাঁই নেই কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায়, রাজ্য যুব মোর্চার পদ থেকে ইস্তফা সৌমিত্রর
‘মানুষ বোকা নয়’, যশ-শ্রাবন্তী-পায়েলকে নিয়ে সমালোচনায় বিজেপি নেত্রী কাঞ্চনা
মুখে লিউকোপ্লাস্ট লাগিয়ে বসে থাকুন, বিরোধীদের তীব্র কটাক্ষ জ্যোতিপ্রিয় র
আজ থেকে অধিবেশন, ভেবে চিন্তে আপাতত পদ্ম সারিতেই বসবেন মুকুল
হোয়াটসঅ্যাপ এর বার্তা ফাঁস করে ষড়যন্ত্রর প্রমাণ দিলেন দেবাংশু !
‘রাজ ভবনে কেন দেবাঞ্জনের দেহরক্ষী?’রাজ্যপালের সঙ্গে ছবি প্রকাশ করে তোপ তৃণমূলের
‘পরকীয়া’য় বেশি মন রাজ্যপালের, বিতর্কিত দাবি মদন মিত্রের
ভোটার সংখ্যা ৬৭৬, কিন্তু ভোট পড়ল ৭৯৯! নন্দীগ্রামের নথি নিয়ে তোলপাড় রাজ্য