চতুর্থবার বিয়ের পিঁড়িতে শ্রাবন্তী! শোরগোল নেট দুনিয়ায়

সকাল-সকাল শ্রবান্তীর বিয়ের ফোটো দেখে চমকে গিয়েছিল নেটপাড়া। হলটা কি! কবে ডিভোর্স হল, আর কবেই বা বিয়ে করলেন। পরে জানা গেল, এটা নিছকই একটা ফোটোশ্যুট। আর তার ছবিই শেয়ার করেছেন অভিনেত্রী শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়। কিন্তু দুপুর গড়াতে না গড়াতেই ফের চমক। শুধু ফোটো দিয়ে মন ভরল না অভিনেক্রীর। সঙ্গে একটি ভিডিয়ো শেয়ার করলেন সোশ্যাল মিডিয়ায়।

স্বভাবতই প্রশ্ন উঠছে এর মাধ্যমে কী কোনও নতুন ইঙ্গিত লুকিয়ে রয়েছে? ঠিক যেমন নুসরত একের পর এক স্ট্যাটাস শেয়ার করে নিজের গর্ভাবস্থার ইঙ্গিত দিচ্ছিলেন সকলকে। লাল শাড়ি। হাতে শাঁখা পলা। বড় নাকছাবি। সিঁথিতে সিঁদুর। মাথায় টোপর। নব্য বিবাহিতার বেশে এদিন ইনস্টাগ্রামে দেখা মিলল তাঁর। আর তা দেখেই জল্পনা রটে, তাহলে কি ‘চতুর্থবার’ বিয়ের পিঁড়িতে বসতে চলেছেন অভিনেত্রী। ভিডিয়োতে দেখা যাচ্ছে, লাজুক নজরে ক্যামেরার দিকে তাকাচ্ছেন শ্রাবন্তী। ঠিক যেন নতুন কনে। মাথা ভরা সিঁদুরে রূপ খুলেছে। ব্যাকগ্রাউন্ডে ব্যবহার করা হয়েছে, ‘ওপারে থাকবো আমি’ গানটি।

প্রসঙ্গত, তৃতীয় স্বামী রোশন সিংহ রাজি নন শ্রাবন্তীকে ডিভোর্স দিতে। সোমবার ‘রেস্টিটিউশন অব কনজুগাল রাইটস’ ধারায় শ্রাবন্তীর সঙ্গে পুরোনো সব তিক্ততা ভুলে ফের সংসার পাততে চেয়ে আদালতে মামলা করেছেন তিনি। সঙ্গে সংবাদমাধ্যমকেও জানিয়েছেন, শ্রাবন্তীকে বিচ্ছেদ দিতে তিনি রাজি নন। বরং, সংসার পাততে চান আরও একবার। ২০১৯ সালের এপ্রিলে চণ্ডীগড়ের একটি গুরুদ্বারে গাঁটছড়া বেঁধেছিলেন তাঁরা। কিন্তু ২০২০-র নভেম্বর মাস থেকেই দু’জনের তিক্ততার খবর প্রকাশ্যে আসে।

হ্যাঁ, আমি অনুদান দিতে ইচ্ছুক

    You May Like this Article
 

You May Like

‘মুখে কিছু না বললেও আর কতদিন টানতে পারবো জানি না’, করুণ পোস্ট ‘ভিলেন’ সুমিতের
অভিনেতা নয়, বডিবিল্ডারই হতে চেয়েছিলেন রবি ঘোষ
১৫ বছরের দাম্পত্যে ইতি টানছেন আমির-কিরণ
কঠিন লড়াইয়ের মধ্যেও হার না মেনে মানুষকে হাসানোর নাম শুভাশিস
‘শারীরিক ও মানসিক ভাবে যন্ত্রণায় ভুগেছি’, সুস্থ হয়ে ওঠার পর বললেন মিমি
শ্রাবন্তীর ব্যথায় কাতর! কন্ডোমের মধ্যে হৃদয় ভরে কী বলতে চাইলেন রোশন!
চুরির দায়ে গ্রেফতার হলেন মিঠাই খ্যাত অভিনেত্রী সৌমিতৃষা
আর ‘‌বোনুয়া’‌ নন?‌ নুসরত প্রসঙ্গ উঠতেই এড়িয়ে গেলেন মিমি
মৌ বৌদি’ মনামীর বিছানায় কিলবিল করে উঠলো কেউটে সাপ, ভাইরাল ভিডিও!
ঘরে হাউহাউ করে কাঁদছি ,কী উত্তর দেব মুখ্যমন্ত্রী এবং অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে