সোনাগাছি গিয়ে কন্ডোম বিলি করেন মদনদা

তিনি অনলাইনে আসা মানেই ‘লাভলি’ বার্তা দেবেন, আশায় থাকেন মদনভক্তরা। কিন্তু এবারের লাইভ সম্পূর্ণ আলাদা। মন খুলে ভক্ত, বিরোধীদের জন্য সামনে রাখলেন কামারহাটির ‘মদনদা’। জানান, ‘হ্যাঁ, আমি মদন মিত্র। সোনাগাছি যাই…’

সম্প্রতি করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন কামারহাটির তৃণমূল প্রার্থী মদন মিত্র। আপাতত সুস্থ তিনি। বৃহস্পতিবার ফেসবুক লাইভে এসে নিজেই জানিয়েছেন সেকথা। কিন্তু মদন মিত্রের লাইভ কি এত সহজে শেষ হয়। কালো জামা, চোখে রোদ দশমা, আর কণ্ঠে মুক্তমনা হওয়ার ডাক দিলেন মদন। জানালেন, ‘আমি মদন মিত্র সোনাগাছি যাই…’। এদিন ঠিক কী বলেছেন মদন মিত্র? তিনি বলেন, ‘আমাকে একজন জিজ্ঞাসা করল আমি কোথায় গিয়েছিলাম। আমি বললাম আমি সোনাগাছি গিয়েছিলাম। লোকটা বলল, ইস্ কী বাজে কথা বলে। লোকটা আবার জিজ্ঞাসা করল, কোথায় গিয়েছিলেন?আমি বললাম জোড়াসাঁকো ঠাকুরবাড়ি গিয়েছিলাম। লোকটা বলল বাবা লোকটা কী ভালো! আসলে কী জানেন, আমরা সকলেই হিপোক্রেসি করি!’ মদন মিত্রের লাইভের কমেন্টে এই মন্তব্যের পরেই কার্যত ‘লাভলি’ কমেন্টের ছড়াছড়ি। মদনের বক্তব্য বেশ মনে ধরেছে ভক্তদের।

এদিন BJP প্রার্থী অগ্নিমিত্রা পলকে নিশানা সাধেন মদন। অগ্নিমিত্রার ‘কন্ডোম মন্তব্য’-র সমালোচনাও শোনা যায় মদন মিত্রের মুখে। তিনি বলেন, ‘সায়নীকে আপনি যেভাবে কন্ডোম বিক্রি করার কথা বলেছেন তাতে আমার খারাপ লেগেছে।

জানেন কী আমাদের দেশের একটা প্রবলেম আছে, রাজনীতিটা নাকি স্কাউন্ড্রেলদের জায়গা। আমিও অবশ্য একটা স্কাউন্ড্রেল। তবে সোনাগাছি নিয়ে এভাবে বলবেন না প্লিজ। আমি নিজে সোনাগাছিতে গিয়ে দুর্বারের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে হাজার হাজার কন্ডোম বিলি করেছি। সোনাগাছির দুর্গোপুজো যখন বন্ধ হয়ে গিয়েছিল আমি তখন সেই পুজো শুরু করতে উদ্যোগ নিয়েছিলাম। ওখানকার পুণ্যমাটি না নিলে আবার পুজোও হয় না!’ এখানেই থামেননি মদন। বলেছেন, ‘২ তারিখ সব সামনে এসে যাবে। তারপর না হয় সায়নী তুমি, আমি সঙ্গে শশী পাঁজাকেও ডেকে নেব, আমরা গিয়ে সোনাগাছিতে অনেক কাজ করব।’ এদিন নিজের বক্তব্যের মধ্য দিয়ে মদন বুঝিয়ে দেন পুরনো ঝাঁঝে ফিরে এসেছেন তিনি। তৃতীয় লিঙ্গের মানুষদের কটাক্ষ করা নিয়ে এদিনের লাইভে সরব হতে শোনা যায় মদন মিত্রকে। শেষ কাতর আর্জি, ‘আমাকে আর ফোন করো না প্লিজ! আমি সুস্থ আছি।’

হ্যাঁ, আমি অনুদান দিতে ইচ্ছুক

    You May Like this Article
 

You May Like

বিজেপির শক্তি কমে যাচ্ছে বাংলার বিধানসভায়, শুরুতেই ইনিংসে ইতি দুই বিধায়কের
নিজের দলের সম্পর্কে বিষ্ফোরক অভিযোগ সুজাতা খাঁর, ঘাসফুলের নোংরা লোকদের জন্য হয়েছে তার হার
মন্ত্রী হিসেবে শপথ নেওয়ার পরই ‘পদত্যাগে’র ঘোষণা মানসের, ফিরলেন চেনা মাটিতে
মতপার্থক্য! বালুমাটির শুভেন্দু বিরোধী দলনেতা হয়েই খারিজ করলেন লালমাটির দিলীপের তত্ত্ব
বিরোধী দলনেতা হয়েও মন ভালো নেই শুভেন্দুর, কারন‌ মমতার বাংলা ভালো নেই
কোন‌ পুরুষ না, মন্ত্রীসভায় জায়গা করে নিলেন‌ জঙ্গলমহলে তিন কন্যা
তবে কি ঝড়ে গেলো মুকুল?জায়গা করে নিলো শুভেন্দু
বিধায়ক হয়েই অশোক ভট্টাচার্যের বাড়িতে শংকর, পা ছুঁয়ে গুরুকে প্রণাম করলেন শিষ্য
চোর, লম্পটদের জন্য এতবড় হার বিজেপির।তথাগতর নিশানা থেকে বাদ গেল না দিলীপ,কৈলাসরা
কেন্দ্রীয় হস্তক্ষেপের প্রয়োজন নেই কোন, এতদিন অনেক করার জন্য ধন্যবাদ-সুর ছড়ালেন দিলীপ বাবু