সাত বছর সাফল্যের চূড়ায় থাকার পর ঘোর অনিশ্চয়তা, ‘সিঁদুরে মেঘ’ পিকের

প্রশান্ত কিশোরের ভবিষ্যৎ নিয়ে ঘোরতর অনিশ্চয়তা তৈরি হয়ে গেল বাংলার ভোট সাঙ্গ হতেই। বাংলার নির্বাচনে অভুতপূর্ব সাফল্যের পর প্রশান্ত কিশোর পাড়ি জমাতে চেয়েছিলেন পঞ্জাবে। তিনি মুখ্যমন্ত্রীর মুখ্য উপদেষ্টা হিসেবে দায়িত্ব নিযুক্ত হয়েছিলেন। কিন্তু হঠাৎই অশনি সংকেত ভোট কৌশলী পিকের কেরিয়ারে। সাত বছর সাফল্যের চূড়ায় থাকার পর প্রশান্ত কিশোরের ভবিষ্যৎ এখন প্রশ্নের মুখে পড়ে গিয়েছে। ২০১২ থেকে ভোট কৌশলী হিসেবে যাত্রা শুরু করলেও ২০১৪ সালে মোদীকে দিল্লির কুর্সিতে বসিয়েই তিনি ভারতীয় রাজনীতিতে পরিচিত মুখ হয়ে উঠেছিলেন।

তারপর সাফল্য আর সাফল্য। মাঝে মাত্র একটাই ব্যর্থতা। একুশের বিধানসভা নির্বাচনে তিনি চ্যালেঞ্জ দিয়ে বিজেপিকে হারিয়ে দিয়েছেন। চ্যালেঞ্জ দিয়েছিলেন, বিজেপি টু ডিজিট ক্রস করলে ভোট কৌশলীর পেশায় তাঁকে আর দেখা যাবে না। তিনি ছেড়ে দেবেন এই পেশা। তিনি চ্যালেঞ্জ জিতে গিয়েছেন। বিজেপি আটকে গিয়েছে ৭৭-এই। তবুও তিনি ঘোষণা করেছেন সন্ন্যাসের।

সম্প্রতি, প্রিন্সিপাল অ্যাডভাইসর হিসেবে প্রশান্তের নিয়োগকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টে মামলা দায়ের হয়েছে। সেই মামলায় পঞ্জাব সরকারকে নোটিশ দিয়েছে শীর্ষ আদালত। মুখ্যমন্ত্রীর ঘনিষ্ঠ মহল সূত্রে খবর, পিকে কাজ চালিয়ে যেতে ইচ্ছুক নন বলে জানিয়েছেন। প্রশান্ত কিশোর যদি ওই পদ থেকে সরে আসেন, তবে তাঁর ভবিষ্যৎ নিয়ে প্রশ্ন উঠে পড়বে আবার।

হ্যাঁ, আমি অনুদান দিতে ইচ্ছুক

    You May Like this Article
 

You May Like

‘নিজের নাক কেটে পরের যাত্রা ভঙ্গ করেছে বিজেপি কর্মী’, বিস্ফোরক শুভেন্দু
তৃণমূল প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানি বলেই হেরেও মুখ্যমন্ত্রী মমতা: শুভেন্দু
ঠাঁই নেই কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায়, রাজ্য যুব মোর্চার পদ থেকে ইস্তফা সৌমিত্রর
‘মানুষ বোকা নয়’, যশ-শ্রাবন্তী-পায়েলকে নিয়ে সমালোচনায় বিজেপি নেত্রী কাঞ্চনা
মুখে লিউকোপ্লাস্ট লাগিয়ে বসে থাকুন, বিরোধীদের তীব্র কটাক্ষ জ্যোতিপ্রিয় র
আজ থেকে অধিবেশন, ভেবে চিন্তে আপাতত পদ্ম সারিতেই বসবেন মুকুল
হোয়াটসঅ্যাপ এর বার্তা ফাঁস করে ষড়যন্ত্রর প্রমাণ দিলেন দেবাংশু !
‘রাজ ভবনে কেন দেবাঞ্জনের দেহরক্ষী?’রাজ্যপালের সঙ্গে ছবি প্রকাশ করে তোপ তৃণমূলের
‘পরকীয়া’য় বেশি মন রাজ্যপালের, বিতর্কিত দাবি মদন মিত্রের
ভোটার সংখ্যা ৬৭৬, কিন্তু ভোট পড়ল ৭৯৯! নন্দীগ্রামের নথি নিয়ে তোলপাড় রাজ্য