মাধ্যমিক পরীক্ষা বাতিল, অবসাদে আত্মঘাতী দিনহাটার এক পরীক্ষার্থী

করোনা পরিস্থিতি এবছরের মতো বাতিল হয়েছে মাধ্যমিক পরীক্ষা। এই ঘোষণার পরই আত্মঘাতী হয়েছে এক পড়ুয়া। মৃত ছাত্রীর পরিবারের দাবি, মাধ্যমিক পরীক্ষা বাতিল হওয়াতে অবসাদে ভুগছিল মেয়েটি। সেই অবসাদ থেকেই এমন কাণ্ড ঘটিয়েছে বলে মনে করছে মৃতের পরিবার। মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার কোচবিহারের দিনহাটায়। মৃত ছাত্রীর নাম বর্ণালী বর্মন। তাঁর বয়স ১৬ বছর৷ গোপালনগর হাই স্কুলের পড়ুয়া ছিল সে। পড়ার ঘর থেকেই ছাত্রীর মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। মেধাবী ছাত্রীটির ইচ্ছা ছিল মাধ্যমিকে প্রথম দশের মধ্যে থাকবে। টিভিতে তাঁর নাম উঠবে।

অনেক আশা নিয়ে বুক বেঁধেছিল সে। নাচে, গানে ছিল লেখাপড়ার মতই কালী ছিল সমান পারদর্শী। ক্লাস টেনের শুরু থেকেই নাওয়াখাওয়া ভুলে শুধু পড়া নিয়েই থাকতাে, পরিবারকে দেওয়া কথা রাখার জন্য। মাধ্যমিক পরীক্ষা নেওয়া হবে কিনা সেটা নিয়ে ই-মেলে জনমত চাইলে গত ৬ জুন বিকেল ৬.৪০ মিনিটে বাবা সারদারঞ্জন বর্মণের ইমেল আইডি থেকে pbssm.spo@gmail.com ঠিকানায় মেল করে কালী লিখেছিল, “কোভিডবিধী মেনে নিজেদের স্কুলেই পরীক্ষা নেওয়া হােক।কিন্তু পরীক্ষা নেওয়া আবশ্যক।Open book system এর মাধ্যমে পরীক্ষা নিলে পরীক্ষার্থীদের quality বােঝা যাবে না। আর online এ পরীক্ষা নেওয়া অসম্ভব কারণ অনেকরই smartphone নেই। তাই আমি চাই পরীক্ষা সব covidsystem মেনেই নিজেদের স্কুলেই হােক।কিন্তু ওই মেল মুখ্যমন্ত্রীর কাছে সংখ্যালঘুর দলে পড়েছিল। সােমবার নবান্নে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি সাংবাদিক বৈঠক করে জানিয়ে দিয়েছেন, “জনমত ও বিশেষজ্ঞ কমিটির সুপারিশের ভিত্তিতে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা বাতিল করা হয়েছে।”

এই বিষয়ে মৃত ছাত্রীর কাকা প্রসেনজিত বর্মন জানিয়েছেন, অন্যান্য দিনের মত পড়ার ঘরে দরজা বন্ধ করে পড়তে গিয়েছিল সে। তবে অনেক রাত হয়ে যাওয়ার পরেও ঘর থেকে বাইরে না বেরনোয় হওয়ায় সন্দেহ হয় পরিবারের৷ ডাকাডাকির পর কোনও আওয়াজ না পেয়ে দরজা ভাঙে পরিবার৷ দেখা যায় ফ্যান থেকে কাপড়ে ফাঁস লাগিয়ে ঝুলছে ওই ছাত্রী। দিনহাটা থানায় খবর গেলে তারা মৃতদেহটি নামিয়ে ময়নাতদন্তে পাঠায়। আত্মহত্যার পিছনে অন্যকোনও কারণ আছে কিনা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।ছাত্রীর মৃতদেহটি পুলিশ ময়নাতদন্তে পাঠিয়েছে৷ পরিবার জানিয়েছে, মাধ্যমিক পরীক্ষা নিয়ে ধোঁয়াশা তৈরি হওয়ায় গত কয়েকদিন থেকে উদ্বিগ্ন ছিল এই ছাত্রী৷ সোমবারে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ঘোষণার পর সে আরও মানসিক ভাবে ভেঙ্গে পড়ে। পুলিশ জানিয়েছে, তার পড়ার ঘর থেকে একটি লাল কালিতে লেখা নোট উদ্ধার হয়েছে। তাতে লেখা আছে বাবার সব ইচ্ছা সে পূরণ করতে পারল না।

হ্যাঁ, আমি অনুদান দিতে ইচ্ছুক

    You May Like this Article
 

You May Like

ঠাঁই নেই কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায়, রাজ্য যুব মোর্চার পদ থেকে ইস্তফা সৌমিত্রর
হোয়াটসঅ্যাপ এর বার্তা ফাঁস করে ষড়যন্ত্রর প্রমাণ দিলেন দেবাংশু !
‘রাজ ভবনে কেন দেবাঞ্জনের দেহরক্ষী?’রাজ্যপালের সঙ্গে ছবি প্রকাশ করে তোপ তৃণমূলের
১৫০টির বেশি পরিবারের হাতে ত্রান তুলে দিলেন শালতোড়ার বিধায়ক চন্দনা বাউড়ি
পাগল ছাড়া মুখ্যমন্ত্রী মমতাকে কেউ বিশ্বাস করেননা - মমতাকে ফের আক্রমণ দিলীপের
‘কালো কুকুর চিৎকার করে’, ধনখড় প্রসঙ্গে বিতর্কিত মন্তব্য মদন মিত্রের
"কে সুজাতা? কোনো স্ট্যান্ডার্ড নেই। পাগলের মত সবসময় বকে যায়।"-বৈশাখী
‘আমরা কর্মীদের নিরাপত্তা দিতে পারছিনা, তাই দল ছেড়ে যাচ্ছে’ : দিলীপ
কালিয়াচক কাণ্ডে নয়া মোড়! ক্রমশ রহস্য ঘনীভূত হচ্ছে
বাংলায় চাকরি নেই, তাই মানুষ গুজরাত-মহারাষ্ট্রে ছুটছে: দিলীপ