পাকিস্তানের সিরিয়ালে শোনা গেল ‘আমার পরান যাহা চায়’, মুগ্ধ নেটদুনিয়া

ভারত-পাক বিরোধ দীর্ঘদিনের। তবে সম্প্রতি সেই দ্বন্দ্বকে ভুলিয়ে দু দেশকে সুন্দর বন্ধনে আবদ্ধ করলেন যিনি তিনি আর কেউ নন, রবীন্দ্রনাথ। পাক (পাকিস্তান) সিরিয়ালে বাজল রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের লেখা ‘আমার পরান যাহা চায়’ গানটি। আর এটি শুনে রীতিমতো মুগ্ধ নেট বিশ্বের লোকেরা।

বিশ্বাস হচ্ছে না তো ? তবে এটি একদম সত্য। সম্প্রতি, পাকিস্তানের হিন্দি সিরিয়াল ‘দিল কেয়া করে’ সিরিয়ালের এক চরিত্রের গলায় শোনা গিয়েছে ‘আমার পরান যাহা চায়’। নেট ওয়ার্ল্ডে উঠে আসা ভিডিও ক্লিপটিতে ৪ জনকে দেখা যাচ্ছে। তাদের মধ্যে একজন মহিলা রবীন্দ্র সংগীত গাইছেন, আর বাকী সবাই মুগ্ধ হয়ে শুনছেন।এমনই এক ভিডিও শেয়ার করেছেন এদেশের এক নেটিজেন।

ভিডিওটি শেয়ার করে তিনি লিখেছেন,  “রবীন্দ্র সংগীত মানেই নেই কোনও গণ্ডি … পাকিস্তানের জনপ্রিয় টেলিভিশন সিরিয়াল” দিল কেয়া করে “এর একটি দৃশ্য! আর এই পোস্ট থেকে জানা যাচ্ছে, গানটি গেয়েছেন শর্বরী দেশপাণ্ডে। “পরিচালক মেহরিন জব্বার, অভিনেত্রী উমনা জায়েদী, পরিচালক মেহরিন জব্বারের ইনস্টাগ্রাম পেজে ভিডিওটি শেয়ার করেছেন।বিখ্যাত অভিনেতা আদিল হুসেন পাক সিরিয়ালের এই ভিডিও ক্লিপটি শেয়ার করেছেন। তার টুইটার পোস্ট অনুসারে, এই রবীন্দ্র সংগীত আগেও এই পাক সিরিয়ালে ব্যবহৃত হয়েছিল।

আদিল হুসেনের শেয়ার করা ভিডিও ক্লিপের নীচে অনেক নেটিজেন মন্তব্য করেছেন।নেটিজেনদের কমেন্ট দেখেই বোঝা যাচ্ছে পাকিস্তানের ধারাবাহিকে রবীন্দ্রসঙ্গীতের ব্যবহারে তারা রীতিমতো মুগ্ধ হয়েছেন। দেখুন সেই কমেন্ট –

হ্যাঁ, আমি অনুদান দিতে ইচ্ছুক

    You May Like this Article
 

You May Like

‘মুখে কিছু না বললেও আর কতদিন টানতে পারবো জানি না’, করুণ পোস্ট ‘ভিলেন’ সুমিতের
অভিনেতা নয়, বডিবিল্ডারই হতে চেয়েছিলেন রবি ঘোষ
১৫ বছরের দাম্পত্যে ইতি টানছেন আমির-কিরণ
কঠিন লড়াইয়ের মধ্যেও হার না মেনে মানুষকে হাসানোর নাম শুভাশিস
‘শারীরিক ও মানসিক ভাবে যন্ত্রণায় ভুগেছি’, সুস্থ হয়ে ওঠার পর বললেন মিমি
শ্রাবন্তীর ব্যথায় কাতর! কন্ডোমের মধ্যে হৃদয় ভরে কী বলতে চাইলেন রোশন!
চুরির দায়ে গ্রেফতার হলেন মিঠাই খ্যাত অভিনেত্রী সৌমিতৃষা
আর ‘‌বোনুয়া’‌ নন?‌ নুসরত প্রসঙ্গ উঠতেই এড়িয়ে গেলেন মিমি
মৌ বৌদি’ মনামীর বিছানায় কিলবিল করে উঠলো কেউটে সাপ, ভাইরাল ভিডিও!
ঘরে হাউহাউ করে কাঁদছি ,কী উত্তর দেব মুখ্যমন্ত্রী এবং অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে