ব্যার্থ হয়নি চন্দ্রযান ২, চাঁদের চক্কর কাটছে অর্বিটর, পাঠাচ্ছে ছবি

নিজস্ব প্রতিবেদন:  রাত ১.৫৪ নাগাদ চাঁদের মাটিতে নামার কথা ছিল চন্দ্রযান ২ এর ল্যান্ডার বিক্রমের। আর সেই ঐতিহাসিক মূহূর্তের সাক্ষী থাকতে প্রতীক্ষায় ছিল দেশবাসী।কিন্তু রাত ১.৫৩ নাগাদ   চাঁদ থেকে মাত্র ২.১ কিমি দূরত্বে থাকার সময়ই ল্যান্ডার বিক্রমের সাথে এর সাথে ইসরোর (Isro) যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়।

এরপরই রাত প্রায় ২ঃ৩০ নাগাদ ইসরোর প্রধান কে. সিবন অফিসিয়ালি ঘোষণা করেন যে, ল্যান্ডার বিক্রমের সাথে ইসরোর সম্পর্ক বিচ্ছিন্ন হয়েছে।এই বিষয়ে সমস্ত তথ্য বিশ্লেষণ করা হচ্ছে।তবে প্রশ্ন কেনই চন্দ্রযান ২কে ইসরোর সফল মিশন বলা যাবে ? মূলত চন্দ্রযান-২ তিনটি অংশে আছে অর্বিটর (২৩৭৯ কেজি), বিক্রম (১৪৭১ কেজি) আর প্রজ্ঞান (২৭ কেজি)। দু সেপ্টেম্বর চন্দ্রপৃষ্ঠে অবতরণের জন্য অর্বিটর থেকে আলাদা হয়ে গিয়েছিল বিক্রম।তবে শেষ মূহূর্তে ইসরোর সাথে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়।ভেঙে যায় ১৩০ কোটির ভারতবাসীর স্বপ্ন। চন্দ্রযান ২ এর সফলতা প্রসঙ্গে ইসরোর এক আধিকারিক জানিয়েছেন, অভিযানে কেবল মাত্র পাঁচ শতাংশ ক্ষতি হয়েছে।

একইসঙ্গে তিনি বলেন, অভিযানের ৯৫ শতাংশ সফলতার দায়িত্বে রয়েছে অর্বিটর যা সফলতা পূর্বক চাঁদের চক্কর কেটে যাচ্ছে এবং চাঁদের বিভিন্ন অ্যাঙ্গেলের ছবি পাঠিয়েই চলেছে । তার কথায়, ৯৭৮ কোটি টাকা খরচ করে চাঁদে পাঠানো চন্দ্রযান-২ এর অভিযান এখনো সম্পূর্ণ শেষ হয়নি।অর্বিটর আগামী এক বছর পর্যন্ত ইসরোকে ছবি পাঠাতে থাকবে।এছাড়াও জানা যাচ্ছে, সম্পর্ক বিচ্ছিন্ন হওয়া ল্যান্ডার বিক্রম কি অবস্থায় রয়েছে তারও ছবি পাঠাতে পারবে অর্বিটর।। এরফলে ওই ল্যান্ডার এখন কেমন পরিস্থিতিতে আছে সেটা জানা যাবে।