ডুবতে চলেছে মধ্য প্রদেশ সরকার, ব্যাঙ্গালুরুতে আরও যোদ্ধা পাঠাবে কংগ্রেস

নিজস্ব প্রতিবেদন: জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়ার অনুগত ১৯ জন কংগ্রেস বিধায়কদের রাজি করিয়ে দলে ফিরিয়ে আনার জন্য বৃহস্পতিবার বেঙ্গালুরুতে আরও বেশি মন্ত্রী প্রেরণ করবে মধ্যপ্রদেশ সরকার। নবনিযুক্ত কর্ণাটকের কংগ্রেস প্রধান ডি কে শিবকুমারকে বিধায়কদের দলে ফিরিয়ে আনার দায়িত্ব দেওয়ার একদিন পর এমনটাই জানিয়েছেন কংগ্রেসের এক নেতা।যদিও ১৯ জন বিধায়কদের মধ্যে তিনজন এখন বেঙ্গালুরুতে নেই।

কমলনাথ মন্ত্রিসভায় দুজন মন্ত্রী, সজন সিং ভার্মা এবং গোবিন্দ সিং দাবি করেছেন, শিবকুমারের সহায়তায় বেঙ্গালুরুতে বিধায়কদের সাথে আলোচনা হয়েছে। এমনকি সন্ধ্যায় ভোপালে ফিরে আসার পরে সজন সিং ভার্মা জানিয়েছেন, “বিধায়করা আমাদের বলেছিলেন যে তারা বিভ্রান্ত হয়েছিলেন এবং তারা কংগ্রেসের সঙ্গে থাকবে।” অবশ্য বুধবার বিজেপিতে যোগ দেওয়া সিন্ধিয়ার প্রতি তার আনুগত্যের বিষয়টি নিশ্চিত করে এক মহিলা তথা শিশু উন্নয়ন মন্ত্রী ইমারতী দেবী একটি ভিডিও বার্তার মাধ্যমে তাদের এই দাবি প্রত্যাখ্যান করে বলেন যে তিনি সর্বদা তাঁর পাশে দাঁড়াবেন, এমনকি যদি আমাকে কোনও কূপে ঝাঁপিয়ে পড়তে হয় তবেও।

তিনি আরও বলেন, তিনি এবং অন্যান্য বিদ্রোহী কংগ্রেস বিধায়করা নিজেদের ইচ্ছাতেই সিন্ধিয়ার আশীর্বাদ নিয়ে বেঙ্গালুরুতে শিবির করছেন।তাদের কংগ্রেসে ফিরে যাওয়ার কোনও সম্ভাবনা নেই।এছাড়াও অপর মন্ত্রী এবং সিন্ধিয়ার অনুগত, তুলসী সিলাভও সমস্ত বিদ্রোহী বিধায়কদের পক্ষে একই জাতীয় ভিডিও বিবৃতি প্রকাশ করেছেন। তবে থেমে নেই বিজেপিও। প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহান ও নরোত্তম মিশ্র একই বিষয় আলোচনা করেছেন এবং কংগ্রেস মন্ত্রীদের বিধায়কদের সাথে বৈঠক করতে বাধা দিতে দলের সিনিয়র কর্মীকে বেঙ্গালুরুতে প্রেরণের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।জানা যাচ্ছে, ইতিমধ্যে ৩জন বিজেপি নেতা বেঙ্গালুরুতে রয়েছেন।

 
0