মন্ত্রী হিসেবে শপথ নেওয়ার পরই পদত্যাগের ঘোষণা, ফিরলেন চেনা মাটিতে

ফের রাজ্য রাজনীতিতে ফিরছেন মানস ভুঁইয়া। দিল্লির রাজনীতি থেকে ফিরছেন চেনা ময়দানে। একুশের বিধানসভা ভোটে নিজের খাসতালুক সবং থেকে ফের একবার জয়ী হয়ে বিধায়ক হয়েছেন মানস ভুঁইয়া। সোমবার তিনি রাজভবনে মন্ত্রী হিসেবে শপথ গ্রহণও করলেন।

ফলে সাংসদ হিসেবে তাঁর পদত্যাগ করা এখন স্রেফ সময়ের অপেক্ষা। রাজ্যে পালাবদলের পর ২০১১ সালে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মন্ত্রিসভায় জোটশরিক কংগ্রেসের বিধায়ক হিসেবে সেচ মন্ত্রীর দায়িত্ব পেয়েছিলেন মানস ভুইঁয়া। তারপর কংগ্রেসের সঙ্গে জোট ছিন্ন হয়ে যাওয়ায় তাঁকে পদত্যাগ করতে হয় মন্ত্রিসভা থেকে। পরে তিনি তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দেন। লোকসবা নির্বাচনে তিনি টিকিটও পেয়েছিলেন। ২০১৯-এর লোকসভায় মেদিনীপুর কেন্দ্র থেকে তিনি দিলীপ ঘোষের কাছে পরাজিত হন।

তবে রাজ্যের মূখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল সূপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বর্ষীয়ান ওই নেতাকে রাজ্যসভার সাংসদ করে পাঠান দিল্লিতে। এবার বিধানসভার লড়াইয়ে জেতার পর তিনি ফের ফিরছেন রাজ্য রাজনীতিতে। এবার তিনি জলসম্পদ উন্নয়ন দফতরের দায়িত্ব পেয়েছেন।

রাজ্যের মন্ত্রী হওয়ার পর তিনি রাজ্যসভার সাংসদ পদ থেকে ইস্তফা দিচ্ছেন। রাজ্যসভার চেয়ারম্যাম বেঙ্কাইয়া নাইডুর কাছে নিজের পদত্যাগ পত্র পাঠাবেন বলে জানিয়েছেন তিনি। ২০১৬ সালে সবং থেকে তিনি কংগ্রেসের টিকিটে জিতেছিলেন। তারপর ফের ২০২১-এ তিনি সবং থেকে জিতলেন তৃণমূলের টিকিটে। মন্ত্রী হিসেবে শপথ নেওয়ার দু-সপ্তাহের মধ্যে সাংসদ পদ থেকে ইস্তফা দেওয়া বাধ্যতামূলক।

হ্যাঁ, আমি অনুদান দিতে ইচ্ছুক

    You May Like this Article
 

You May Like

ঠাঁই নেই কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায়, রাজ্য যুব মোর্চার পদ থেকে ইস্তফা সৌমিত্রর
হোয়াটসঅ্যাপ এর বার্তা ফাঁস করে ষড়যন্ত্রর প্রমাণ দিলেন দেবাংশু !
‘রাজ ভবনে কেন দেবাঞ্জনের দেহরক্ষী?’রাজ্যপালের সঙ্গে ছবি প্রকাশ করে তোপ তৃণমূলের
১৫০টির বেশি পরিবারের হাতে ত্রান তুলে দিলেন শালতোড়ার বিধায়ক চন্দনা বাউড়ি
পাগল ছাড়া মুখ্যমন্ত্রী মমতাকে কেউ বিশ্বাস করেননা - মমতাকে ফের আক্রমণ দিলীপের
‘কালো কুকুর চিৎকার করে’, ধনখড় প্রসঙ্গে বিতর্কিত মন্তব্য মদন মিত্রের
"কে সুজাতা? কোনো স্ট্যান্ডার্ড নেই। পাগলের মত সবসময় বকে যায়।"-বৈশাখী
‘আমরা কর্মীদের নিরাপত্তা দিতে পারছিনা, তাই দল ছেড়ে যাচ্ছে’ : দিলীপ
কালিয়াচক কাণ্ডে নয়া মোড়! ক্রমশ রহস্য ঘনীভূত হচ্ছে
বাংলায় চাকরি নেই, তাই মানুষ গুজরাত-মহারাষ্ট্রে ছুটছে: দিলীপ