রাজীবের ভ্যালু জিরো, আমরা প্রমাণ করে দিয়েছি, বললেন কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়

সদ্য তৃণমূলে ফিরেছেন মুকুল রায়। তবে কি এবার রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়? এ জাতীয় জল্পনা আরও দৃঢ় হল যখন রাজীব আজ কুণাল ঘোষের বাড়িতে দেখা করতে গেলেন। অবশ্য রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন যে এটি সৌজন্যমূলক সাক্ষাত্কার ছিল। তবে এপ্রসঙ্গে মুখ খুললেন তৃণমূলের সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়। শনিবার হুগলির কোননগরে অক্সিজেন পার্লার উদ্বোধন করতে গিয়ে কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, আমি প্রমাণ করেছি যে রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়ের মান একদম শূন্য। তিনি অনেক বড় বড় কথা বলেছেন। এবার তাকে দলে নিয়ে কী লাভ হবে তা দল সিদ্ধান্ত নেবে।

কল্যাণ আরও বলেন, দিদি গতকালই স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন যে বিশ্বাসঘাতকরা দলে কোনো জায়গা পাবে না। শেষ পর্যন্ত রাজীবকে নিয়ে কী করবেন তা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং দল সিদ্ধান্ত নেবে। আমার কাছে ১০-১৫ ভিডিও রয়েছে যেখানে রাজীব মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সম্পর্কে অনেক খারাপ কথা বলেছেন।হয়তো কুনালের কাছে সেই ভিডিও নাও থাকতে পারে।

এদিকে, তৃণমূলে রাজিবের প্রত্যাবর্তনের জল্পনা নিয়ে ডোমজুড়ে পোস্টার পড়েছে, গদ্দারকে পার্টিতে ফেরত নয়। এনিয়ে কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন্, কাকে দলে অন্তর্ভুক্ত করা হবে এবং কারা থাকবেন না তার প্যারামিটার দিদী সিদ্ধান্ত নেবেন। আমাদের কিছুই করার নেই। তবে এটা ঠিক, আমি প্রচুর পরিশ্রম করে রাজীবকে ৪৩,০০০ ভোটে হারিয়েছি। আমরা প্রমাণ করে দিয়েছি যে রাজীব কিছুই নয়।

হ্যাঁ, আমি অনুদান দিতে ইচ্ছুক

    You May Like this Article
 

You May Like

‘নিজের নাক কেটে পরের যাত্রা ভঙ্গ করেছে বিজেপি কর্মী’, বিস্ফোরক শুভেন্দু
তৃণমূল প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানি বলেই হেরেও মুখ্যমন্ত্রী মমতা: শুভেন্দু
ঠাঁই নেই কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায়, রাজ্য যুব মোর্চার পদ থেকে ইস্তফা সৌমিত্রর
‘মানুষ বোকা নয়’, যশ-শ্রাবন্তী-পায়েলকে নিয়ে সমালোচনায় বিজেপি নেত্রী কাঞ্চনা
মুখে লিউকোপ্লাস্ট লাগিয়ে বসে থাকুন, বিরোধীদের তীব্র কটাক্ষ জ্যোতিপ্রিয় র
আজ থেকে অধিবেশন, ভেবে চিন্তে আপাতত পদ্ম সারিতেই বসবেন মুকুল
হোয়াটসঅ্যাপ এর বার্তা ফাঁস করে ষড়যন্ত্রর প্রমাণ দিলেন দেবাংশু !
‘রাজ ভবনে কেন দেবাঞ্জনের দেহরক্ষী?’রাজ্যপালের সঙ্গে ছবি প্রকাশ করে তোপ তৃণমূলের
‘পরকীয়া’য় বেশি মন রাজ্যপালের, বিতর্কিত দাবি মদন মিত্রের
ভোটার সংখ্যা ৬৭৬, কিন্তু ভোট পড়ল ৭৯৯! নন্দীগ্রামের নথি নিয়ে তোলপাড় রাজ্য