তবে কি ঝড়ে গেলো মুকুল?জায়গা করে নিলো শুভেন্দু

রাজ্যে বিজেপির ক্ষমতা দখলের স্বপ্ন ধুলিস্যাত হলেও রাজ্যে ৭৭ টি আসন জিতে প্রধান বিরোধী দল হিসেবে উঠে এসেছে। এমন অবস্থায় বিধানসভায় কে বিরোধী দলনেতা হবেন তা নিয়ে জল্পনা তুঙ্গে ছিল বিজেপির অন্দরে। অবশেষে সমস্ত জল্পনার অবসান। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে নন্দীগ্রামের বিধায়ক শুভেন্দু অধিকারী হতে চলেছেন বিধানসভার বিরোধী দলনেতা।

কারন কঠিন সময়েও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নন্দীগ্রামে হারিয়ে ‘জায়ান্ট কিলার’ তকমা পেয়েছেন। অন্যদিকে বিধানসভায় মন্ত্রী হিসেবে তাঁর পূর্ব অভিজ্ঞতা। এই দুইয়ের মিশেলে শুভেন্দুই এখন কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের পছন্দের নাম শুভেন্দু অধিকারী। তবে কয়েকজনের মুখে সংঘ ঘনিষ্ঠ কাউকে বিরোধী দলনেতা ঘোষণা করার কথা বললেও তেমন কোন জয়ী প্রার্থী না থাকায় সেই দাবি ধোপে টেকেনি। সঙ্ঘ-ঘনিষ্ঠ আশিসের নাম কোনও কোনও মহলে শোনা গেলেও তা আলোচনায় আসেনি বলেই জানা গিয়েছে। বিরোধী দলনেতা বাছতে ইতিমধ্যেই কেন্দ্রীয় আইনমন্ত্রী রবিশঙ্কর প্রসাদ এবং দলের অন্যতম সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক ভূপেন্দ্র যাদবকে দায়িত্ব দিয়েছে বিজেপি। গেরুয়া শিবির সূত্রে খবর, সোমবার পরিষদীয় দলের বৈঠক ডাকা হয়েছে। সেখানে দলের ৭৭ জন বিধায়ককে হাজির থাকতে বলা হয়েছে। তবে তার আগে দিল্লিতে শনিবার বিরোধী দলনেতা বাছতে বৈঠক হয়।

‘স্বেচ্ছায়’ লড়াইয়ে নামেননি মুকুল, রাজ্যের সম্ভাব্য বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীই। তবে মুকুল ঘনিষ্ঠরা জানিয়েছেন  ”বিরোধী দলনেতা কে হবেন জানি না। তবে যদি কে এগিয়ে, কে পিছিয়ে জিজ্ঞেস করেন তবে বলব, দাদা স্বেচ্ছায় পিছিয়ে।” তাই শুভেন্দুর বিরোধী দলনেতা হওয়া এখন সময়ের অপেক্ষা বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

হ্যাঁ, আমি অনুদান দিতে ইচ্ছুক

    You May Like this Article
 

You May Like

‘নিজের নাক কেটে পরের যাত্রা ভঙ্গ করেছে বিজেপি কর্মী’, বিস্ফোরক শুভেন্দু
তৃণমূল প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানি বলেই হেরেও মুখ্যমন্ত্রী মমতা: শুভেন্দু
ঠাঁই নেই কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায়, রাজ্য যুব মোর্চার পদ থেকে ইস্তফা সৌমিত্রর
‘মানুষ বোকা নয়’, যশ-শ্রাবন্তী-পায়েলকে নিয়ে সমালোচনায় বিজেপি নেত্রী কাঞ্চনা
মুখে লিউকোপ্লাস্ট লাগিয়ে বসে থাকুন, বিরোধীদের তীব্র কটাক্ষ জ্যোতিপ্রিয় র
আজ থেকে অধিবেশন, ভেবে চিন্তে আপাতত পদ্ম সারিতেই বসবেন মুকুল
হোয়াটসঅ্যাপ এর বার্তা ফাঁস করে ষড়যন্ত্রর প্রমাণ দিলেন দেবাংশু !
‘রাজ ভবনে কেন দেবাঞ্জনের দেহরক্ষী?’রাজ্যপালের সঙ্গে ছবি প্রকাশ করে তোপ তৃণমূলের
‘পরকীয়া’য় বেশি মন রাজ্যপালের, বিতর্কিত দাবি মদন মিত্রের
ভোটার সংখ্যা ৬৭৬, কিন্তু ভোট পড়ল ৭৯৯! নন্দীগ্রামের নথি নিয়ে তোলপাড় রাজ্য