‘নিজের নাক কেটে পরের যাত্রা ভঙ্গ করেছে বিজেপি কর্মী’, বিস্ফোরক শুভেন্দু

Image : Google

বাংলায় বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপির হারের বিশ্লেষণ করলেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী । পূর্ব মেদিনীপুরের চণ্ডীপুরে রবিবার নন্দকুমার ৩ মণ্ডলের সভা থেকে দলের ভরাডুবির কারণ ব্যাখ্যা করার পাশাপাশি আক্রমণ করতে ছাড়লেন না সদ্য বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যাওয়া মুকুল রায়কে।তাঁর কথায়, ‘রাজ্যের ২৯৪টি আসনের মধ্যে ১৭০-১৮০ টা হয়ে যাবে ভেবে অনেকেই আত্মতুষ্টিতে ভুগেছিলেন। এমন অনেকেই আছেন যারা নিজেদের প্রার্থীর সম্পর্কেই খারাপ মন্তব্য করেছেন। অর্থাৎ নিজের নাক কেটে পরের যাত্রা ভঙ্গ করার মত বিষয়টা হয়েছিল’।

এবিষয়ে কথা প্রসঙ্গে পূর্ব মেদিনীপুরের উদাহরণ টেনে তিনি বলেন, ‘অনেকেরই ধারণা ছিল খেজুরি, নন্দীগ্রাম, ভগবানপুর, নন্দকুমারে তো জিতেই গিয়েছি, তাই চণ্ডীপুরে দল হারলে কোন অসুবিধা নেই। এরকম মনোভাবই কিন্তু পরাজয়ের জন্য দায়ী’।বিভিন্ন নেতৃত্বের দল ছেড়ে যাওয়ার প্রসঙ্গে কমী সমর্থককের উদ্দেশ্যে বার্তা দিলেন, ‘এই যে টিভিতে দেখাচ্ছে বিজেপি ছেড়ে কখনও এ চলে যাচ্ছে, আবার কখনও ও চলে যাচ্ছে। এসব দেখে একদমই বিলচিত হবেন না। ভারতমাতার একজন বীর সন্তান হিসাবে বিজেপি করতে গেলে, পশ্চিমবঙ্গকে বাংলাদেশ টু হওয়া থেকে রক্ষা করতে দলীয় পতাকাটাকে আঁকড়ে ধরে রাখতে হবে। কে গেল কে এল, ওদিকে অত বেশি কান দিতে হবে না’।

এদিনের সভা থেকে মুকুল রায়কেও আক্রমণ করেন নন্দীগ্রামের বিজেপি বিধায়ক শুভেন্দু অধিকারী। তিনি বলেন, ‘এর আগে কোনদিন নির্বাচনে জয়লাভ করতে পারেননি মুকুল রায়। কৃষ্ণনগর উত্তর আসনে বিজেপির ৫০ হাজার লিড ছিল লোকসভাতেই। আর ওই আসনে যে কাউকে দাঁড় করালে সেও জিতে যেত। তবে মুকুল রায়কে সিনিয়র লিডারের মর্যাদা দিয়ে ওই আসনে বিজেপি দাঁড় করিয়েছিল। কিন্তু উনি ছেলের ব্যবসা বাঁচাতে তৃণমূলে চলে গেলে আপনাদের কি করার আছে!’

হ্যাঁ, আমি অনুদান দিতে ইচ্ছুক

    You May Like this Article
 

You May Like

তৃণমূল প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানি বলেই হেরেও মুখ্যমন্ত্রী মমতা: শুভেন্দু
ঠাঁই নেই কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায়, রাজ্য যুব মোর্চার পদ থেকে ইস্তফা সৌমিত্রর
‘মানুষ বোকা নয়’, যশ-শ্রাবন্তী-পায়েলকে নিয়ে সমালোচনায় বিজেপি নেত্রী কাঞ্চনা
মুখে লিউকোপ্লাস্ট লাগিয়ে বসে থাকুন, বিরোধীদের তীব্র কটাক্ষ জ্যোতিপ্রিয় র
আজ থেকে অধিবেশন, ভেবে চিন্তে আপাতত পদ্ম সারিতেই বসবেন মুকুল
হোয়াটসঅ্যাপ এর বার্তা ফাঁস করে ষড়যন্ত্রর প্রমাণ দিলেন দেবাংশু !
‘রাজ ভবনে কেন দেবাঞ্জনের দেহরক্ষী?’রাজ্যপালের সঙ্গে ছবি প্রকাশ করে তোপ তৃণমূলের
‘পরকীয়া’য় বেশি মন রাজ্যপালের, বিতর্কিত দাবি মদন মিত্রের
ভোটার সংখ্যা ৬৭৬, কিন্তু ভোট পড়ল ৭৯৯! নন্দীগ্রামের নথি নিয়ে তোলপাড় রাজ্য
কাজ করছে না পঞ্চায়েত! চন্দনা বললেন 'আমার হাতে ছেড়ে দিন আমি একাই সামলে নেব"