বিজেপি করার প্রায়শ্চিত্ত! নেড়া হয়ে তৃণমূলে ফিরলেন আরামবাগের ৫০০ কর্মী

এবার আরামবাগের বিজেপি শিবিরে ভাঙন। পদ্মশিবিরে যোগের প্রায়শ্চিত্ত হিসেবে নেড়া হয়ে সাংসদ অপরূপা পোদ্দারের হাত ধরে তৃণমূলে ফিরলেন প্রায় ৫০০ কর্মী। এবিষয়ে এখনও বিজেপির প্রতিক্রিয়া মেলেনি। একুশের নির্বাচনের আগে তৃণমূল ত্যাগের হিড়িক পড়ে গিয়েছিল নেতা-কর্মীদের মধ্যে।

বিভিন্ন এলাকা থেকে বহু কর্মী শিবির বদলে যোগ দিয়েছিলেন বিজেপিতে। কিন্তু কয়েকমাসের মধ্যেই তাঁদের মোহভঙ্গ হয়েছে। দলবদলু বহু নেতা-কর্মীই ধীরে ধীরে ফিরছেন ‘ঘরে’। মঙ্গলবার তৃণমূলে ফিরলেন আরামবাগের ৫০০ বিজেপি কর্মী। এদিন তাঁরা প্রত্যেকে নেড়া হন। কিন্তু কেন? জানা গিয়েছে, বিজেপিতে গিয়ে ভুল করেছিলেন, তার প্রায়শ্চিত্ত স্বরূপ নেড়া হয়েছেন ওই কর্মীরা। ফিরে এসেছেন তৃণমূলে। এ বিষয়ে সাংসদ অপরূপা পোদ্দার বলেন, “ভোটের আগে কর্মীদের ভুল বুঝিয়ে বিজেপিতে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। এখন প্রত্যেকে ভুল বুঝতে পারছেন তাই ফিরে আসছেন।

আর প্রত্যেকে স্বেচ্ছায় প্রায়শ্চিত্ত করার জন্য নেড়া হয়েছেন।”উল্লেখ্য, নিচুতলার কর্মীদের পাশাপাশি ‘দিদি’র বহু বিশ্বস্ত সৈনিক, যাঁরা বহু লড়াইয়ে দলনেত্রীর সঙ্গে ছিলেন একুশের নির্বাচনের আগে তাঁদের অনেকেই তৃণমূল ছেড়েছেন। সেই তালিকায় রয়েছেন তৃণমূল নেত্রীর ঘনিষ্ঠ হিসেবে পরিচিত নই গুহ। ভোট মিটতেই সোনালী গুহ, দিপেন্দু বিশ্বাস-সহ একাধিক নেতা তাঁদের ভুল বুঝতে পেরেছেন। ক্ষমাও চেয়েছেন। তবে তাঁদের ফেরানো নিয়ে তৃণমূল এখনও নিজেদের অবস্থান স্পষ্ট করেনি। তবে একাধিক নেতা-মন্ত্রী বারবার ইঙ্গিতে বুঝিয়েছেন যে তাঁরা দলবদলুদের ঘরে ফেরানোর পক্ষেই। 

হ্যাঁ, আমি অনুদান দিতে ইচ্ছুক

    You May Like this Article
 

You May Like

‘নিজের নাক কেটে পরের যাত্রা ভঙ্গ করেছে বিজেপি কর্মী’, বিস্ফোরক শুভেন্দু
তৃণমূল প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানি বলেই হেরেও মুখ্যমন্ত্রী মমতা: শুভেন্দু
ঠাঁই নেই কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায়, রাজ্য যুব মোর্চার পদ থেকে ইস্তফা সৌমিত্রর
‘মানুষ বোকা নয়’, যশ-শ্রাবন্তী-পায়েলকে নিয়ে সমালোচনায় বিজেপি নেত্রী কাঞ্চনা
মুখে লিউকোপ্লাস্ট লাগিয়ে বসে থাকুন, বিরোধীদের তীব্র কটাক্ষ জ্যোতিপ্রিয় র
আজ থেকে অধিবেশন, ভেবে চিন্তে আপাতত পদ্ম সারিতেই বসবেন মুকুল
হোয়াটসঅ্যাপ এর বার্তা ফাঁস করে ষড়যন্ত্রর প্রমাণ দিলেন দেবাংশু !
‘রাজ ভবনে কেন দেবাঞ্জনের দেহরক্ষী?’রাজ্যপালের সঙ্গে ছবি প্রকাশ করে তোপ তৃণমূলের
‘পরকীয়া’য় বেশি মন রাজ্যপালের, বিতর্কিত দাবি মদন মিত্রের
ভোটার সংখ্যা ৬৭৬, কিন্তু ভোট পড়ল ৭৯৯! নন্দীগ্রামের নথি নিয়ে তোলপাড় রাজ্য