ভারতের ৭৩তম স্বাধীনতা দিবসে জেনে নিন গুরুত্বপূর্ণ ৭টি অজানা তথ্য

নিজস্ব প্রতিবেদন  :আমাদের দেশের স্বাধীনতা নিয়ে এমন অনেক কথাই আছে যেগুলি ভারতবাসী হয়েও আমরা অনেকেই জানি না। যেমন ভারত স্বাধীনতা লাভ করেছিল ১৯৪৭ সালে এবং ১৫ আগস্ট স্বাধীনতা দিবস হিসাবে পালিত হয় ।তবে  তার আগে পরে অনেক অজানা কাহিনি রয়েছে।যেমন আমরা জানি গান্ধীর অসহযোগ আন্দোলনের কারনে ভারত স্বাধীন হয়েছিল। তবে এর পিছনেও রয়েছে একটু অন্য ইতিহাস।

১।গান্ধীর কারনেই যে ভারত স্বাধীন হয়েছিল সেটা কিন্তু ঠিক নয়। ভারতের জন্ম হয়েছে নেতাজি ও তাঁরআজাদ হিন্দ ফৌজের কর্মকাণ্ডের জন্য।একথা নিজমুখে স্বীকার করেছেন তৎকালীন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ক্লেমন্ট এটলি। ২।আনুষ্ঠানিক ভাবে  ১৯৪৭ সালের ১৫ আগস্ট দেশ স্বাধীন হয়েছিল। কিন্তু তার আগে একই বছর ১8 জুলাই অনানুষ্ঠানিক ভাবে ভারত স্বাধীনতা লাভ করেছিল ।৩। মাউন্টব্যাটেন ১৫ আগস্টকে ভারতের স্বাধীনতা দিবস হিসাবে বেছে নিয়েছিলেন। কারণ দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর এই দিনই জাপান মিত্রশক্তির কাছে আত্মসমর্পণ করেছিল। তারই স্মৃতিতে এই দিনকে বেছে নিয়েছিলেন ।৪। স্বাধীনতার আগে ভারতে ৫৫০ জন রাজার ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র রাজ্য ছিল। সর্দার বল্লভভাই পটেল আলোচনায় বসে  তাঁদের একত্রিত করেছিলেন।

৫। দেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী জওহরলাল নেহরু – এটি সবাই জানি। কিন্তু তিনিই সংখ্যাগরিষ্ঠ ভোটে জিতে প্রধানমন্ত্রী হননি, সংখ্যাগরিষ্ঠ ভোটে জিতেছিলেন সর্দার বল্লভভাই পটেল। কিন্তু মহাত্মা গান্ধীর প্রিয় পাত্র ছিলেন নেহরু।আর তাই গান্ধীজি সর্দার বল্লভভাই পটেলকে পদত্যাগ করতে অনুরোধ করেছিলেন এবং প্যাটেল পদত্যাগ করেছিলেন।৬। স্বাধীনতা লাভের পর মহাত্মা গান্ধী জাতীয় কংগ্রেসকে ভেঙে দিতে চেয়েছিলেন। তিনি তাঁর মৃত্যুর এক দিন আগে লেখা একটি খসড়ায় বলেছিলেন, জাতীয় কংগ্রেস তার লক্ষ্য পূরণ করেছে। এটির প্রয়োজন ফুরিয়েছে। ৭। ১৯৭৩ সাল পর্যন্ত স্বাধীনতা দিবসে রাজ্যগুলির রাজ্যপালই জাতীয় পতাকা উত্তোলন করতেন। কিন্তু ১৯৭৪ সালে এর পরিবর্তন ঘটে যায়। এই নিয়ে এম করুণানিধি প্রথম কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে বিষয়টি তুলে ধরেন এবং তিনিই প্রথম মুখ্যমন্ত্রী যিনি স্বাধীনতা দিবসে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন।